( ১০০ % কার্যকরী ) মাত্র ৫ মিনিটেই হাতের কনুই ও পায়ের হাটুর কালো দাগ দূর করার উপায়

0
2
হাতের কনুই ও পায়ের হাটুর কালো দাগ দূর করার উপায়
হাতের কনুই ও পায়ের হাটুর কালো দাগ দূর করার উপায়

আমাদের সৌন্দর্য শুধুমাত্র আমাদের চেহারার উজ্জ্বলতা এবং  আকর্ষণীয় তার মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়। আমাদের মধ্যে এমন অনেকেই আছেন যারা কনুই এবং হাঁটুর কালো জেদি দাগ নিয়ে চিন্তিত। অনেকেই আবার বিভিন্ন ধরনের কেমিক্যালযুক্ত প্রসাধনী ব্যবহার করেছেন তবে  সাময়িক  সুফল পেলেও দীর্ঘস্থায়ী সুফল পাচ্ছেন না। অনেকেই আবার বিভিন্ন ধরনের প্রাকৃতিক উপায়ে হাঁটু ও কুনুই এর কাল দাগ  সমস্যা সমাধানের উপায় খুঁজছেন।

সুপ্রিয় বন্ধুরা তাই আমাদের এই আলোচনাটি সাজিয়েছি কিভাবে দ্রুত সময়ে হাঁটু এবং কনুইয়ের কালো দাগ সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক ভাবে দূর করবেন তার কিছু বিশেষ উপায় নিয়ে। তাহলে চলুন বন্ধুরা দেখে নেয়া যাক দ্রুত উপায় এবং কনুইয়ের কালো জেদি দাগ দূর করার কার্যকরী কিছু  প্রাকৃতিক উপায়।

দ্রুত সময়ে  হাঁটু এবং কনুইয়ের কালো দাগ দূর করার কার্যকরী প্রাকৃতিক উপায় সমূহঃ

  বেকিং সোডা ও দইঃ

  •   একটি পরিষ্কার পাত্রে 1 টেবিল চামচ বেকিং সোডা এবং 1 টেবিল চামচ টক দই ভালোভাবে মিশিয়ে নিয়ে প্রথমে একটি মিশ্রণ তৈরি করতে হবে।
  •   মিশ্রণটি আপনার কোন এবং হাঁটুর কালো দাগের উপর ভালোভাবে মালিশ করুন।
  •   10 থেকে 15 মিনিট মিশ্রণটি শুকানোর সময় দিয়ে গরম কুসুম গরম জলে হাত এবং পা ধুয়ে নিন।

 উপকারিতাঃ

  •   বেকিং সোডা ত্বকের মৃত কোষ দূর করে ত্বককে আদ্র রাখবে।
  •   আর টক দই দাগ দূর করতে এবং তৈলাক্ত ত্বকের জন্য খুবই উপকারী।

 অ্যাপেল সিডার ভিনেগারঃ

  •   আপেল সিডার ভিনেগার 1 টেবিল চামচ, পানি অথবা গোলাপজল 1 টেবিল চামচ। একটি পরিষ্কার পাত্রে নিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরী করে নিন।
  •   মিশ্রণটি আপনার কোনই এবং হাঁটুর কালো দাগের উপর ঘষে ঘষে লাগিয়ে নিন।
  •   তিন থেকে পাঁচ মিনিট ভালোভাবে স্ক্রাপ করে 10 থেকে 15 মিনিট সময় দিন।
  •   এরপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে হাত পা ধুয়ে নিন।

  উপকারিতাঃ 

  • আপেল সিডার ভিনেগার এর মিশ্রণটি কনুই এবং হাঁটুর কালো দাগ দূর করতে অত্যন্ত কার্যকরী।
  •   এসিটিক এসিড হওয়ায় এটি কালো দাগ দূর করে।
  •  এবং ত্বক কে  গভীর থেকে উজ্জ্বল করে তোলে।

হলুদ, বেসন এবং মধুর মাস্কঃ

  •  কনুই এবং হাঁটুর কালো জেদি দাগ দূর করতে হলুদ দর্শন এবং মধুর অত্যন্ত কার্যকরী।
  •  প্রথমে এক চা-চামচ হলুদ, 2 চা চামচ বেসন, 1 চা চামচ মধু একটি পাত্রে নিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে হলুদের মাস্ক তৈরি করে নিন।
  •   মিশ্রণটি কনুই এবং  হাঁটুর কালো দাগের ওপর লাগিয়ে ভালোভাবে স্ক্রাব করে নিন।
  •   5 থেকে 7 মিনিটস ক্রাফট করে 20 মিনিট পর পরিষ্কার জল দিয়ে কনুই এবং হাঁটু ধুয়ে নিন।

  উপকারিতাঃ

  •   কনুই এবং হাঁটুর কালো দাগ সম্পূর্ণরূপে দূর করবে।
  •   ত্বকের মৃত কোষ গুলোকে দূর করে নতুন কোষ জন্মাতে সাহায্য করবে।
  •   কালো দাগ দূর করে উজ্জ্বল এবং ফর্সা করে তুলবে।

এলোভেরা এবং শসার মাস্কঃ

  •   আধা কাপ এলোভেরা জেল এবং 2 চা চামচ শশার রস ভালোভাবে একটি পাত্রে নিয়ে মিশিয়ে নিন।
  •   মিশ্রণটি ঘষে ঘষে করলেন এবং হাঁটুর কালো দাগের মধ্যে ভালভাবে লাগিয়ে নিন।
  •   15 থেকে 20 মিনিট পর কুসুম গরম পানি দিয়ে কোন এবং হাঁটু ভালোভাবে পরিষ্কার করে নিন।
  • ত্বক অতিরিক্ত তৈলাক্ত হলে এই মাস্ক এর সাথে লেবুর রস  মিশিয়ে ব্যাবহার  করলে ভাল ফল পাবেন।

  উপকারিতাঃ

  হাঁটু এবং কনুই এর  ত্বক কে মসৃণ রাখবে।

  কালো দাগ সম্পূর্ণরূপে দূর করে ত্বক কে উজ্জ্বল ও ফর্সা করবে।

  ত্বকের  আর্দ্রতা ধরে রেখে ত্বককে শুষ্ক হয়ে বিবর্ণ হওয়া থেকে রক্ষা করবে।

আমন্ড অয়েল অলিভ অয়েলঃ

  একটা চামচ আমন্ড অয়েল এর সাথে 1 চা চামচ অলিভ হয়েল ভালোভাবে মিশিয়ে নিন।

  কনুই এবং হাঁটুর কালো দাগের উপর মালিশ করে দিয়ে 15 মিনিট পর কুসুম গরম জল দিয়ে ধুয়ে নিন।

  উপকারিতাঃ

  কনুই এবং হাঁটুর ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখে কালো হয়ে যাওয়া থেকে রক্ষা করবে।

  লেবু চিনি এবং আমন্ড অয়েলঃ

  প্রথমে এক হালি লেবু গোল করে কেটে নিয়ে কোনই এবং হাঁটুর দাগের উপর ভালোভাবে ঘষে নিন।

 10 থেকে 15 মিনিট অপেক্ষা করবেন।

  তারপর লেবুর রস শুকিয়ে গেলে চিনি এবং আমন্ড অয়েল কনুই এবং হাটুতে লাগিয়ে ঘষে ঘষে ক্লক এবং এন্টি ক্লক স্টাইলে মাসাজ করুন।

  15 থেকে 20 মিনিট পর কনুই এবং হাঁটু ঠাণ্ডা জলে ধুয়ে নিন।

  উপকারিতাঃ

  • ত্বকের কালো দাগ সম্পূর্ণরূপে দূর করবে
  •   লেবুর রস মেসেজ করার ফলে  ফলে মৃত কোষ সমূহ সম্পন্ন দূর হতে হলে নতুন কোষ জন্মাবে।
  •  কনুই এবং হাঁটু এর দাগ দূর হয়ে। ফলে সেই স্থানে ত্বক উজ্জ্বল এবং ফর্সা হয়ে উঠবে।
  • দ্রুত হাট ও কোনো মেয়ের যদি কালো দাগ দূর করতে কিছু লক্ষণীয় বিষয়ঃ
  •   উপরোক্ত মাস্ক ব্যবহারের পর পরই হাঁটু এবং কনুইয়ের জায়গা ভালোভাবে ময়েশ্চারাইজ করে নিতে হবে।
  •   ময়েশ্চারাইজার বা লোশন একটু ঘাড় করে দিবেন।
  •   হাঁটু এবং কমিয়ে ভর দিয়ে বেশিক্ষণ সময় নিয়ে  কোন কাজ করবেন না।
  •  কনুই এবং ফালতু সব সময় ময়লামুক্ত পরিষ্কার রাখুন।
  •  কনুই এবং হাঁটুর ত্বক শুষ্ক হওয়া থেকেই মূলত কালো দাগ পড়ে যায়। তাই জায়গাগুলো ময়েশ্চারাইজ রাখুন।

  দ্রুত কনুই  এবং হাঁটুর কালো দাগ দূর করে উজ্জ্বল এবং ফর্সা করতে চাইলে মাস্ক গুলো সপ্তাহে তিন থেকে চারবার ব্যবহার করুন।

তাই সম্পূর্ণ ঘরে বসে আমাদের নির্দেশিত পন্থা সমূহ অনুসরণ করে প্রাকৃতিক উপায়ে হাঁটু এবং কনুইয়ের কালো দাগ দূর করে ত্বককে উজ্জ্বল ও ফর্সা করুন। নিজেকে সুন্দর এবং আকর্ষণীয় হিসেবে গড়ে তুলুন। নিজেদের ত্বকের যত্ন নিন।

 ধন্যবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here