রূপচর্চায় গ্লিসারিনের অসাধারণ ৩ টি ব্যবহার। ত্বকের যত্নে গ্লিসারিন ব্যবহার করার নিয়ম

0
83

গ্লিসারিন বিষয়টি যখনই আসে তখনই আমাদের তৈলাক্ত কোন একটি দ্রবণ এর কথা মনে পড়ে যায়। কিন্তু বন্ধুরা, একটি বিষয় মাথায় রাখবেন সেটা হল গ্লিসারিনে এক্সট্রা কোন অয়েল থাকে না। যার কারণে আমরা সব ধরনের ত্বকেই গ্লিসারিন ব্যবহার করতে পারি।

আর গ্লিসারিনের ব্যবহার কিন্তু সব মাসে করা যায়, যদিও আমরা গ্লিসারিন এর ব্যবহার শীতকালে একটু বেশি করে থাকি। কারণ গ্লিসারিন ময়েশ্চারাইজার হিসেবে ব্যবহৃত হয়।

আদ্রতার পরিমাণ আমাদের শীতকালে বেশি দরকার হয়। কিন্তু অতিরিক্ত পরিমাণে সূর্যের তাপের কারণে, ধুলাবালির কারণে গরমকালে আমাদের ত্বক আরও বেশি রাফ হয়ে যায়।

তাই বলা যায় সারা বছরই এ গ্লিসারিনের ব্যবহার করাটা ভালো। আর গ্লিসারিন রূপচর্চার অসাধারণএকটি অংশ ।

মেকআ্পে গ্লিসারিন ব্যবহার করবেন কিভাবেঃ

বন্ধুরা, শীতকালে যখনই আমরা কোন মেকাপ নিতে যায় ,ত্বক শুষ্ক থাকার কারণে মেকাপ ভাল মত থাকে না বা মুখের সাথে ভালোভাবে লাগেনা।

তাই মুখ পরিষ্কার করার পরে আমরা যদি সামান্য গ্লিসারিন মুখে লাগায় এবং এরপরে যদি আমরা যে কোন একটি মেকাপ করি সেটা আমাদের সাথে ভালো মতো একজাস্ট হয়ে যায়।

তাই যেকোনো সময়ে মেকআপ নিতে আমরা গ্লিসারিনের ব্যবহার রাখবো।

শুধু মেকআপ করার সময় নয়, গোসলের পরে যখন ত্বক বেশি শুষ্ক থাকে, তখন গোসলের পরে শরীর ও হাত পায়ে একটু গ্লিসারিন মেখে নিবেন । তাহলে ত্বক থাকবে সফট কোমল ।

ঠোঁটের যত্নে গ্লিসারিন যেভাবে ব্যবহার করবেনঃ

ত্বকের যত্নের সাথে সাথে আমাদের ঠোঁটের যত্নেও কিন্তু গ্লিসারিন দারুণভাবে কাজ করে থাকে। ঠোঁটকে নরম রাখতে বিভিন্ন ধরনের প্রাকৃতিক উপকরণ ব্যবহার করার পর ঠোঁটে গ্লিসারিন লাগাবেন ।

  • ঠোঁটের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে ঘুমানোর আগে ঠোঁটে সামান্য পরিমাণে গ্লিসারিন লাগিয়ে রাখলে আমাদের ঠোঁট একেবারে বাচ্ছাদের ঠোঁটের মত হয়ে যাবে।
  • আর ঠোঁটের যত্নে সারা বছর বিভিন্ন ধরনের লিপিস্টিক বা অন্য কোন প্রোডাক্ট ব্যবহার ছেড়ে দিয়ে আমরা যদি পুরো বছর শুধু গ্লিসারিন ব্যবহার করি তাহলে আমাদের ঠোঁট এত বেশি নরম এবং গোলাপী থাকবে যে আপনারা ভাবতে ও পারবেন না।  

বন্ধুরা, এরপরে যেভাবে আমরা আমাদের রূপচর্চার একটি অংশ হিসেবে গ্লিসারিন রাখতে পারি তা হল………

ত্বকের যত্নে ত্বকের কুচকানো ভাব দূর করতে গ্লিসারিনের ব্যবহারঃ

  • আমাদের ত্বককে অনেক বেশি বয়সী ভাব দূর করতে গ্লিসারিন দারুন কাজ করে। তাই সামান্য পরিমাণে কালিজিরার তেলের সাথে গ্লিসারিন যোগ করে এবং তার সাথে যদি চন্দনের গুঁড়া এবং এলোভেরা যোগ করে আমরা আমাদের ত্বকে লাগাতে পারি। আমাদের ত্বকের কুচকানো ভাব এত টানটান হবে যে, আপনার ত্বক ১০ বছরের কম বয়সি দেখাবে।
  • এছাড়াও আমাদের ত্বক উজ্জ্বল ও ফর্সা করতে বিভিন্ন প্রাকৃতিক প্যাকের সাথে গ্লিসারিন যোগ ব্যবহার করতে পারি।
  • বিভিন্ন ধরনের ফেইসমাস্ক ব্যবহারের সময় আমরা সামান্য পরিমাণে গ্লিসারিন ব্যবহার করলে আমাদের ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পায়।  

বন্ধুরা তাহলে আমরা জানতে পারলাম রূপচর্চায় এই গ্লিসারিন কতটা কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারে। তাই সারা বছরেই আমরা গ্লিসারিনের সংরক্ষণ রাখবো এবং রূপচর্চায় আমরা এই গ্লিসারিন ব্যবহার করবো।

যেহেতু গ্লিসারিনের কোনো সাইড ইফেক্ট থাকেনা এবং সহজে নষ্ট হয়ে যায় না তাই আমরা গ্লিসারিন রূপচর্চার আরেকটি অংশ হিসেবে রাখতে পারি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here