চুল পড়া কমানো সহ মেহেদি পাতার অনেক গুনের কথা ও উপকারিতা

0
37

নববধু ও বরের হাত দুটি রাঙাতে মেহেদির যেন জুড়ি নেই।

এছাড়াও ভিবিন্ন অনুষ্ঠানে নিজের হাতকে রাঙিয়ে তোলার জন্য বেশিরভাগ নারীরা মেহেদী ব্যবহার করেন।     

হাত দুটোকে রাঙিয়ে সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতে মেহেদির কোন বিকল্প নেই ।

হাতকে রাঙিয়ে তুলা ছাড়াও মেহেদির রয়েছেন নানা উপকারিতা । চুলের যত্নে কিংবা ভিবিন্ন রোগে ওষুধ হিসেবে এর ব্যবহার করা যায় ।  

তাই যাদের মেহেদি পাতার অনেক গুনের কথা ও উপকারিতার কথা জানা নেই তারা এই পোষ্টটি পড়া শেষ করলে মেহেদি পাতার সকল উপকারিতা গুলো জানতে পারবেন ।

আর সঠিক সময়ে প্রয়োজন মত মেহেদি পাতা ব্যবহার করতে পারবেন ।

মেহেদি পাতার গুণাগুন ও উপকারিতাঃ

১। চুল পড়া বন্ধ করেঃ

মেহেদি পাতা চুল পড়া কমাতে দারুণ কাজ করে। যারা নিজেদের চুল পড়া বন্ধ করতে চান তারা নিয়মিত মেহেদি পাতার হেয়ার প্যাক ব্যবহার করতে পারেন।

চুল পড়া বন্ধ করার হেয়ার প্যাক

আর যদি নিয়মিত ব্যবহার করার সময় হয়ে ওঠে না তারা সপ্তাহে অন্তত দুদিন মেহেদি পাতার হেয়ার প্যাক ব্যবহার করলে চুল পড়া পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাবে।

২। চুলকে ঘন করে তুলেঃ  

চুল পড়া রোধ করার পাশাপাশি মেহেদি পাতা চুলকে ঘন কালো করার জন্য খুব কার্যকর। চুলকে ঘন কালো করার জন্য মেহেদি পাতার হেয়ার প্যাক ব্যবহার করতে পারেন ।

 চুল ঘন করতে মেহেদি পাতা ,

আপনারা সপ্তাহের দুবার মেহেদি পাতার হেয়ার প্যাক ব্যবহার করলে চুল ঘন লম্বা এবং স্বাস্থ্যোজ্জ্বল হবে।

৩। হাত-পায়ের জ্বালাপোড়া কমিয়ে আনেঃ

অনেকের হাত পায়ে জ্বালাপোড়া সমস্যা রয়েছে। মেহেদি পাতা হাত পায়ের জ্বালাপোড়া কমিয়ে আনতে সাহায্য করে।

আপনাদের যদি হাত পায়ে জ্বালা হয় তাহলে হাতের তালু এবং পায়ের তালুতে মেহেদী লাগিয়ে নিন এবং এর উপর হাতের মধ্যে হাত মোজা এবং পায়ের মধ্যে পা মোজা পড়ে সারারাত রেখে দিন । সকালবেলা উঠে আপনারা মোজা কোলে নিয়ে দেখবেন এতে করে আপনাদের হাত পায়ের জ্বালাপোড়া কমে গেছে  ।

৪। মাথাব্যথা নিরাময় করেঃ

প্রাচীনকাল থেকে রাজা-বাদশাদের মাথা ব্যাথা দূর করার জন্য তাদের। চিকিৎসকরা মেহেদি পাতার ফুল ব্যবহার করে আসছেন । মাথা ব্যাথা করলে মেহেদী ফুলের পেস্ট এর সাথে ভিনেগার মিশিয়ে কপালে লাগালে অথবা মাথা ব্যথার স্থানে লাগিয়ে রাখলে ও মাথাব্যথা কমে যায়।

৫। পানি পচা রোগ সারিয়ে তুলেঃ  

 নোংরা পানি থেকে কিংবা বৃষ্টির পানি থেকে এই রোগ হতে পারে । এই রোগের লক্ষণ হচ্ছে দুই আঙুলের মাঝখানে কেটে গেছে মত হবে অথবা চামড়া উঠে গিয়ে সাদা হয়ে যাবে যা ব্যথা করবে। এই রোগ হলে ক্ষত স্থানে যদি মেহেদি পাতা বেটে লাগিয়ে দেয়া যায় তাহলে খুব তাড়াতাড়ি সেরে ওঠে।

৬। ঘুমের সমস্যা দূর করেঃ

যাদের অনিদ্রার সমস্যা রয়েছে অর্থাৎ ঘুম কম হয় তাদের জন্য মেহেদি পাতা খুব উপকারী হবে। ঘুমের সমস্যা দূর করার জন্য প্রতিদিন এক চামচ করে মেহেদি পাতার রস খেলে ঘুমের সমস্যা পুরোপুরি দূর হয়ে যাবে এবং আপনি পাবেন একটি আরামদায়ক ঘুম । এছাড়াও মেহেদি পাতা ফুলের বালিশ তৈরি করে যদি ঘুমানো যায় তাহলে মাথাব্যথা কমে যায় । এই পদ্ধতিটি প্রাচীনকালে ইউনানী চিকিৎসক গণ রাজা বাদশাদের চিকিৎসকরা অনিদ্রা দূর করার জন্য ব্যবহার করত ।

৭। নখের যত্ন করেঃ

নখ মজবুত এবং আকর্ষণীয় করে তোলার জন্য মেহেদি পাতা অত্যন্ত কার্যকরী । নখে মেহেদি পাতার রঙ যদি লাগানো যায় তাহলে নখ অনেক বেশি সুন্দর হয় এবং এতে নখ পাতলা হয়ে ভেঙে যাওয়া রোধ হয় ।   

৮। বাতের ব্যথা দূর করেঃ

মেহেদি পাতা মাথা ব্যথা দূর করার সাথে সাথে বাতের ব্যথা দূর করে।  যে স্থানে বাতের ব্যথা হয় সে স্থানে যদি মেহেদি পাতার রস এবং সরষের তেল লাগিয়ে যদি মালিশ করা যায় তাহলে এই ব্যাথা দূর হয়ে যাবে।

কালো রঙ্গের মেহেদি পাতা ত্বকের জন্য রেস ও এলার্জি বয়ে আনে । তাই মেহেদি পাতা ব্যবহারের ক্ষেত্রে সচেতন থাকতে হবে ।  যেকোন সমস্যার সমাধানে আপনারা ভালো মানের মেহেদী পাতা ব্যবহার করবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here