মেছতা ও মুখের দাগ দূর করতে ২টি ঘরোয়া কলার ফেসপ্যাক

0
41
মেছতা ও মুখের দাগ দূর করতে ২টি ঘরোয়া কলার ফেসপ্যাক

আমাদের ত্বকে যখন ব্রণ ,ব্রণের দাগ, মেছতা কিংবা চোখের নিচে কালো দাগ পড়ে তখন আমাদের মুখের সৌন্দর্য হারিয়ে যায় । দাগের কারণে মুখের সৌন্দর্য নষ্ট হয়ে গেলেও সব বয়সের রমণীই একান্ত মনোকামনা দাগহীন নিখুঁত উজ্জ্বল ত্বক ।

আর ঘরোয়া কিছু উপায় অবলম্বন করলে নিজের ত্বককে দাগহীন নিখুঁত উজ্জ্বল রাখা সম্ভব ।

মুখের দাগ দূর করার রেমেড়ি

তাই মুখের দাগ ও মেছতা দূর করতে ২টি ঘরোয়া ফেসপ্যাক আপনাদের সাথে শেয়ার করছি। যা খুব দ্রুত মেছতা ও মুখের কালো দাগ দূর করে দিবে ।   

চলুন দেখে নিই মুখের মেছতা ও ত্বকের সকল কালো দাগ দূর করতে এই ফেসপ্যাক গুলো কিভাবে তৈরি ও ব্যবহার করতে হবে ।

মেছতা ও মুখের দাগ দূর করার ফেসপ্যাক-১

ফেসপ্যাকটি তৈরি করতে যা যা লাগবেঃ

ত্বকের জন্য কলার উপকারিতা

কলার পেষ্ট – ২ চামচ

বেসন – ১ চামচ

কালো দাগ ও ব্রণের দাগ দূর করতে এলোভেরার টিপস

মধু -১ চামচ

টকদই – ১ চামচ

তৈরির ধাপ ও ব্যবহার পদ্ধতিঃ

প্রথমে একটি পাকা কলা নিয়ে টুকরো টুকরো করে কেটে ব্লেন্ড করে নিন।

এবার একটি পরিস্কার কাঁচের বাটিতে সবগুলো উপাদান একসাথে নিয়ে খুব ভাল করে মিশিয়ে নরম পেষ্ট তৈরী করুন।   

এরপর মুখ পরিস্কার করে সারা মুখে প্যাকটি লাগিয়ে অপেক্ষা করুন যেন প্যাকটি পুরুপুরি শুকিয়ে যায় ।  

ত্বক ফর্সা করতে বেসনের ফেসপ্যাক

প্যাকটি পুরুপুরি শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন ।

মেছতা ও মুখের দাগ দূর করার ফেসপ্যাক-২

ফেসপ্যাকটি তৈরি করতে যা যা লাগবেঃ

১ টি- কলার পেষ্ট  

মুলতানি মাটি কিভাবে ব্যবহার করব

মুলতানি মাটি – ৪ চামচ

কাঁচা তরল দুধ – পরিমান মত ( স্মোথ পেষ্ট তৈরি করার জন্য ) 

তৈরির ধাপ ও ব্যবহার পদ্ধতিঃ

প্রথমে একটি পাকা কলা নিয়ে টুকরো টুকরো করে কেটে ব্লান্ড করে নিন।

এবার একটি পরিস্কার কাঁচের বাটিতে সবগুলো উপাদান একসাথে নিয়ে খুব ভাল করে মিশিয়ে নরম পেষ্ট এর মিশ্রণ তৈরী করুন।   

এরপর একটি আইস ট্রে ( বরফের ট্রে) নিয়ে এরমধ্যে তৈরি করা মিশ্রণ নিয়ে নিন। 

এরপর এটি ফ্রিজের মধ্যে রেখে দিন । ( ৮ ঘন্টা পর থেকে ব্যবহার করতে পারবেন )

বরফের টুকরো তৈরি হয়ে গেলে বরফের টুকরো নিয়ে ত্বকের মধ্যে ৫ মিনিট ম্যাসাজ করুন ।

৫ মিনিট ম্যাসাজ করার পর এটি ত্বকের মধ্যে আরো ১০ মিনিট রেখে দিন ।

মুখের সাথে শরীরের রং ফর্সা করার উপায়

 ১০ মিনিট পর ত্বক পরিস্কার জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন ।

নোটঃ

১। ফেসপ্যাক – ২ তৈরি করার সাথে সাথেও ব্যবহার করতে পারবেন । ( ফ্রিজে না রেখে )

২। ফেসপ্যাক – ২ ফ্রিজে রেখে ৭ দিন পর্যন্ত ব্যবহার করতে পারবেন ।

৭ দিন পর আর ব্যবহার করা যাবে না ।

৩। ফেসপ্যাক-১ সপ্তাহে ৩ দিন ব্যবহার করতে পারবেন । আর ফেসপ্যাক – ২ প্রতিদিন ব্যবহার করতে পারবেন । ( বরফ টুকরো প্রতিদিন এপ্লাই করা )

কমন কিছু প্রশ্ন ও তার উত্তরঃ

১। প্রশ্নঃ মুলতানি মাটি কোথায় পাব ?

উত্তরঃ মুলতানি মাটি যে কোন কসমেটিকের দোকানে পাবেন । 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here