বোয়াল মাছের উপকারিতা ও যত পুষ্টিগুণ

0
24

বন্ধুরা, এই জীবনে হয়তো অনেক ধরনের মাছ আপনারা খেয়েছেন।  আমাদের দেশে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ রয়েছে এবং এই মাছের গুণগতমান ও কিন্তু অনেক। 

কিন্তু এই অনেকগুলো মাছের ভিড়ে কিছু কিছু মাছ রয়েছে যা আমাদের শরীরের জন্য অনেক বেশি উপকারী। বোয়াল মাছ হচ্ছে  তাদের মধ্যে অন্যতম। 

বোয়াল মাছ কোথায় পাওয়া যায়ঃ

বোয়াল মাছ বিশেষ করে নদী, নালা, খাল, বিশেষ করে যেখানে মিঠা পানি থাকে, সেই সকল জায়গায় বেশি পরিমাণে বোয়াল মাছ পাওয়া যায়। 

অন্যান্য সময়ের তুলনায় বর্ষাকালে বোয়াল মাছের চাহিদা অনেক বেশি থাকে। কারণ এ সময় বোয়াল মাছ বেশি পরিমাণে পাওয়া যায়। কিন্তু বর্তমানে বিভিন্ন প্রযুক্তি ব্যবহার করে সারাবছর বোয়াল মাছের চাষ করা হচ্ছে। বোয়াল মাছের উপকারিতার উপর ভিত্তি করে এর চাহিদা দিন দিন বেড়ে যাচ্ছে। আজ আপনাদের সাথে বোয়াল মাছের উপকারিতা নিয়ে আলোচনা করতে যাচ্ছি।

বোয়াল মাছ চেনার উপায়ঃ

অনেকে বোয়াল মাছ চিনতে পারে না কারণ বোয়াল মাছ দেখতে অনেকটা পাঙ্গাস মাছের মত। আবার যখন এটি মোটামুটি সাইজের বড় হয় তখন দেখতে হাঙ্গর এর মত দেখা যায়। তাই আজকে আপনাদেরকে বোয়াল মাছের নির্দিষ্ট কিছু বৈশিষ্ট্য জানিয়ে দিব। যে বৈশিষ্ট্যগুলো দেখামাত্রই আপনারা বোয়াল মাছ চিনতে পারবেন।

বোয়াল মাছের শরীরে কোন আইশ থাকে না। এটি দেখতে সাদাটে রঙের। বোয়াল মাছ আকারে লম্বা হয় এবং দুই পাশ অনেকটা ছাপা হয়ে যায়। বোয়াল মাছের সামনে চোয়ালের চেয়ে নিচের চোয়াল বড় হয় এবং উপরে্র দুই পাশে গোঁফ থাকে। যার কারণে বোয়াল মাছ কে ক্যাটফিশ বলা হয়ে থাকে।

শরীরের শক্তি ক্ষমতা বাড়াতে বোয়াল মাছের উপকারিতাঃ  

যারা অনেক বেশী দুর্বল থাকে বা যাদের শরীর অসুস্থ থাকে তারা অনেক বেশি দুর্বল হয়ে পড়ে। এই দুর্বলতা থেকে কাটিয়ে উঠতে ডাক্তারেরা তাদেরকে বোয়াল মাছ খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। কারণ বোয়াল মাছে থাকা ওমেগা 3 ফ্যাটি এসিড যা শরীরের শক্তি ক্ষমতা বাড়াতে  

দারুন ভাবে কাজ করে।

রক্তকে বিশুদ্ধ করতে বোয়াল মাছের উপকারিতাঃ

বিভিন্ন ধরনের ভেজাল খাবার খাওয়ার কারণে আমাদের শরীরের রক্ত অনেক সময় দূষিত হয়ে যায়। যার কারণে আমাদের ব্লাড সার্কুলেশন ঠিক ভাবে হয় না। এই ধরনের সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে আমাদের নিয়মিত খাবারের তালিকায় বোয়াল মাছ রাখার প্রয়োজন। কারণ বোয়াল মাছে থাকা উপাদানসমূহ আমাদের শরীরের রক্ত বিশুদ্ধ করতে কার্যকরীভাবে ভূমিকা রাখে।

স্মৃতিশক্তি বাড়াতে বোয়াল মাছের উপকারিতাঃ

বোয়াল মাছের থাকা ওমেগা 3 ফ্যাটি এসিড আমাদের নার্ভাস সিস্টেমকে একটিভ রাখার পাশাপাশি আমাদের স্নায়ুতান্ত্রিক দুর্বলতা কাটিয়ে ফেলে। যার কারণে স্মৃতিশক্তি বাড়াতে বোয়াল মাছের ভূমিকা অনেক। 

সতর্কতাঃ বন্ধুরা এতক্ষণ ধরে প্রতিবেদনে যে বিষয়গুলো তুলে ধরলাম এগুলো হচ্ছে বোয়াল মাছ খাওয়ার উপকারিতা। কিন্তু অতিরিক্ত পরিমাণে বোয়াল মাছ খেলে আমাদের শরীরে এলার্জির পাশাপাশি হৃদ রোগ বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

তাই পরিমিত পরিমাণে বোয়াল মাছ খেয়ে নিজের শারীরিক সুস্থতা বজায় রাখার চেষ্টা করব। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here