শুষ্ক ও সেনসেটিভ ত্বকের যত্নে, ত্বক ফর্সা ও উজ্জ্বল করতে অ্যালোভেরার ফেসপ্যাক

0
406
শুষ্ক ও সেনসেটিভ ত্বকের যত্ন

আমাদের ত্বকের ধরণ অনুযায়ী আমাদের ত্বকের যত্ন করা উচিত। আর ত্বকের যত্ন নেবার জন্য প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করা ভাল । আর ত্বকের যত্ন নেবার জন্য অ্যালোভেরার মত প্রাকৃতিক উপাদান থাকলে চিন্তা করার কিছু থাকে না। আজ শুষ্ক ও সেনসেটিভ ত্বকের যত্নে এবং ত্বক ফর্সা ও উজ্জ্বল করতে অ্যালোভেরার ফেসপ্যাক শেয়ার করছি। এই ফেসপ্যাক ত্বকের দাগ দূর করে ত্বককে ফর্সা ও উজ্জ্বল করবে। 

চলুন ফেসপ্যাক গুলো কি কি তা দেখে নিই। 

১। বেসন ও অ্যালোভেরার ফেসপ্যাক

ত্বক ফর্সা করতে এলোভেরার ফেসপ্যাক

বেসন ও অ্যালোভেরার ফেসপ্যাক তৈরির প্রয়োজনীয় উপাদানঃ

  • অ্যালোভেরা জেল – ২ চামচ
  • বেসন  – ১ চামচ
ব্রণ দূর করার উপায়
  • টকদই – ১ চামচ
  • গোলাপজল  – ১ চামচ

বেসন ও অ্যালোভেরা ফেসপ্যাক তৈরির প্রণালী ও ব্যবহার পদ্ধতিঃ

  • একটি পরিষ্কার বাটির মধ্যে অ্যালোভেরা জেল , বেসন ,টক দই ও গোলাপ জল একটি পরিষ্কার বাটির মধ্যে নিয়ে সবগুলো উপাদানকে খুব ভালোভাবে মিশিয়ে পেষ্ট তৈরি করে নিতে হবে। 
  • এরপর কুসুম গরম পানিতে তুলা বা সুতির কাপড় ভিজিয়ে ত্বক ভালোভাবে মুছে নিন।
  • ত্বক মুছে নেবার পর ব্রাশ বা তুলার প্যাড এর সাহায্যে এটি মুখে এপ্লাই করুন। 
বেসন ও হলুদের ফেসপ্যাক
  • ফেইসপ্যাকটি মুখে এপ্লাই করার পর ১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। 
  • ১৫ মিনিট অপেক্ষা করার পর এটি পুরোপুরি শুকিয়ে গেলে মুখ পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। 

২। কলা ও অ্যালোভেরার ফেসপ্যাক

কলা ও অ্যালোভেরা ফেসপ্যাক তৈরির প্রয়োজনীয় উপাদানঃ 

  • অ্যালোভেরা জেল – ২০ গ্রাম অথবা ছোট ছোট দুটি টুকরা
ত্বকের দাগ দূর করার ফেসপ্যাক
  • পাকা কলা – ১৫ গ্রাম বা তিন থেকে চার টুকরা 
  • গোলাপজল – ৪ টেবিল চামচ বা ১ কাপ 

কলা ও অ্যালোভেরার ফেসপ্যাক তৈরি ও ব্যবহারের পদ্ধতিঃ

  • প্রথমে একটি এলোভেরার পাতা নিয়ে এর দুপাশ অর্থাৎ আগা কেটে ১০মিনিট অপেক্ষা করুন । 
ব্রন দূর করার উপায়
  • ১০ মিনিট পর অ্যালোভেরার পাশ থেকে হলুদ রঙের একটা পদার্থ বের হয়ে আসবে তা মুছে নিতে হবে ।
  • অ্যালোভেরার পাতা মুছে নেওয়ার পর অ্যালোভেরার উপরের আবরণটা ছুরি দিয়ে তুলে ফেলুন। 
  •  এরপর অ্যালোভেরার টুকরো ও কলার টুকরো এবং গোলাপজল একসাথে নিয়ে ব্লেন্ড করে নিন। 
  • ব্লেন্ড করার পর পেষ্টটি বাটিতে ঢেলে নিন।
  • এটি ঢেলে নেবার পর ব্রাশ বা তুলার প্যাড এর সাহায্যে সারা মুখে লাগান।
  •  এটি লাগানোর সময় খেয়াল রাখতে হবে চোখ ও ঠোঁটে যেন না লাগে ।
  • এটি মুখে লাগিয়ে ২০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে ।
ত্বকের দাগ দূর করার ফেসপ্যাক
  •  ২০ মিনিট পর ত্বক পরিষ্কার জল দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে । 

কেন কাজ করবেঃ

কলাঃ

কলাতে ত্বকের জন্য উপকারী বিভিন্ন উপাদান আছে তার মধ্যে আছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা ত্বকের বলিরেখা দূর করে ত্বককে ইয়াং করতে সাহায্য করে ।

তৈলাক্ত ত্বকে এলোভেরার ব্যবহার

কলার মধ্যে থাকা লাইকোপিন ব্রণ সৃষ্টিকারী জীবাণু ধ্বংস করে। এছাড়াও কলা ত্বককে পরিষ্কার চকচকে উজ্জ্বল ও নরম করবে। 

আলোভেরা জেলঃ

আলোভেরা জেলের মধ্যে রয়েছে প্রাকৃতিক ময়শ্চারাইজিং প্রোপারটি যা ত্বককে ভিতর থেকে ময়শ্চারাইজ করে ত্বককে তুলতুলে নরম, কোমল  ও মুলায়েম রাখে।

বেসনঃ

ত্বক ফর্সা করার ফেসপ্যাক

আমাদের ত্বকের মধ্যে সারা দিনে জমে থাকা ধুলো ময়লাকে ত্বক হতে দূর করে ত্বককে খুব দ্রুত মসৃণ ও ফর্সা করে তুলার জন্য বেসন ত্বকের মধ্যে অসাধারণ কাজ করে থাকে।

টকদইঃ

এই প্যাকটিতে আমি টকদই ব্যবহার করেছি। টকদইয়ে ল্যাকটিক এসিড আছে , এটি ত্বক হতে কালোদাগ, বয়সের ছাপ ও ব্রণের দাগকে দূর করে দিয়ে ত্বককে দাগহীন করে তুলবে।

ত্বক ফর্সা করার ফেসপ্যাক

আর দইয়ে রাইবো ফ্লেবিন নামক একটি element আছে যেটি ত্বকে নতুন কোষের গ্রোথ বাড়িয়ে দেয় যার ফলে ত্বক ইয়াং ও গ্লোয়ি হয়ে ওঠে ।

গোলাপজলঃ

গোলাপজল ত্বকে টোনার হিসেবে কাজ করে।

ফেসপ্যাক

বন্ধুরা আপনারা আপনাদের ত্বককে সব সময় ক্লিন ও ফ্রেশ রাখার জন্য এই ফেসপ্যাকগুলো বাড়িতে ট্রাই করুন । 

নোটঃ 

এই ফেসপ্যাকের যে কোন একটি সপ্তাহে দুই থেকে তিনবার ব্যবহার করতে পারবেন। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here