মাত্র 5 দিনে দাগহীন ফর্সা এবং চকচকে ত্বক পেতে শসা ত্বকে এইভাবে ব্যবহার করুন

0
82

আমাদের শরীরকে সুস্থ এবং ফিট রাখতে শসা অনন্য গুণ সমৃদ্ধ অত্যন্ত সুস্বাদু একটি ফল। আমাদের ত্বকের যত্নেও শসা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

প্রায় সব ধরনের উন্নত মানের প্রসাধনীতে শসার ব্যবহার লক্ষ্য করা যায়  আর শশা প্রায় সব ধরনের ত্বকের জন্যই উপযোগী।  

যারা ত্বকে ব্রণের দাগ সহ ত্বকের কালো রং নিয়ে চিন্তিত তাদের জন্য শসাতে রয়েছে রূপচর্চার সব চিন্তার সমাধান। নির্দিষ্ট কিছু নিয়ম মেনে ত্বকে নিয়মিত শসা ব্যবহার করলে আপনার ত্বক হয়ে উঠবে সম্পূর্ণ দাগহীন, চকচকে, ফর্সা এবং উজ্জ্বল।

তাই আপনাদের দাগ মুক্ত, ফর্সা এবং উজ্জ্বল ত্বক পেতে ত্বকে কিভাবে শসা ব্যবহার করবেন তার উপায় শেয়ার করছি তাহলে চলুন বন্ধুরা দেখে নেয়া যাক মাত্র 5 দিনে দাগহীন, উজ্জ্বল, কোমল, মসৃণ এবং চকচকে ত্বক পেতে শসার ব্যবহার পদ্ধতি।

দাগহীন ফর্সা এবং চকচকে ত্বক পেতে ত্বকে শসার ব্যবহার করার পদ্ধতি সমূহঃ

ত্বকের উজ্জলতা বাড়াতে ত্বকের যত্নে সহসা ব্যবহারের জন্য আপনাকে তিনটি ধাপ অতিক্রম করতে হবে। নিম্নে ধাপ সমূহ বিস্তারিত আলোচনা করা হলোঃ

প্রথম ধাপঃ

আধা বাটি শশার রস নিয়ে তুলা বা সুতির কাপড়ের সাহায্যে মুখ ভালভাবে মুছে নিয়ে ত্বক পরিস্কার করে নিন।  

দ্বিতীয় ধাপঃ

দাগমুক্ত, উজ্জ্বল, ফর্সা, চকচকে এবং আকর্ষণীয় ত্বকের জন্যে শসা ব্যবহারের দ্বিতীয় ধাপটি হচ্ছে ত্বক  ভালোভাবে স্ক্রাব করা। এর জন্য প্রথমেই আপনাকে শসা দিয়ে তৈরি একটি প্যাক তৈরি করে নিতে হবে।

উপকরণঃ

২ টেবিল চামচ শশার রস

১ চামচ এলোভেরা জেল

১ চামচ চিনি

উপকরণসমূহ একটি পরিষ্কার পাত্রে নিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে একটি ঘন মিশ্রণ তৈরি করুন।

এরপর পরিষ্কার তোলা অথবা ব্রাশের সাহায্যে সম্পূর্ণ মুখে মিশ্রণটি স্ক্রাব করে লাগিয়ে নিন।

7 থেকে 10 মিনিট ভালোভাবে স্ক্রাব করুন।

এরপর ঠান্ডা জলে মুখ ধুয়ে নিন।

তৃতীয় ধাপঃ

ত্বকে শসা ব্যবহার এর তৃতীয় ধাপ টি হচ্ছে ত্বকে শসার ফেসপ্যাক এপ্লাই করা। নির্দিষ্ট কিছু সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপকরণ দিয়ে আপনি  বাড়িতে বসেই শশার ফেসপ্যাক তৈরি করতে পারবেন।

3 টেবিল চামচ শশার রস।

2 চামচ মুলতানি মাটি।

1 চা-চামচ অ্যালোভেরার জেল।

সমস্ত উপকরণ গুলো  একটি পরিষ্কার পাত্র নিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে তৈরি করে নিন সহায়ক অত্যন্ত কার্যকরী ফেইস প্যাক টি। ত্বক কে দাগ মুক্ত করতে এবং ত্বক কে স্থায়ী ভাবে উজ্জ্বল ও ফর্সা করতে ও আয়নার মত চকচকে করতে এই ফেসপ্যাকটি অত্যন্ত কার্যকরী।

ব্যবহার পদ্ধতিঃ

শসা ত্বকে ব্যবহারের তৃতীয় ধাপে এসে আপনি যেকোনো একটি  অত্যন্ত কার্যকরী শসার ফেসপ্যাক তৈরি করে নিন।

তোলা অথবা পরিষ্কার ব্রাশের সাহায্যে সম্পূর্ণ মুখে শসার ফেসপ্যাকটি ভালোভাবে স্ক্রাব করে লাগিয়ে নিন।

10 থেকে 15 মিনিট স্ক্রাবার দিয়ে অথবা হাতের সাহায্যে আলতোভাবে মাসাজ করুন।

মিশ্রণটি সম্পূর্ণ শুকানোর জন্য 20 থেকে 25 মিনিট সময় দিন।

সম্পূর্ন শুকিয়ে গেলে কুসুম গরম জলে তোলা ভিজিয়ে মিশ্রণ গুলো আস্তে আস্তে ঘষে ঘষে তুলে নিন।

সবশেষে পরিষ্কার ঠান্ডা জলে মুখ ধুয়ে নিন।

উপরে উল্লেখিত তিনটি ধাপ ভালোভাবে যথাযথভাবে পালন করে শসা আপনার ত্বকে ব্যবহার করলে মাত্র 5 দিনেই আপনার ত্বক সম্পূর্ণ দাগহীন উজ্জ্বল এবং ফর্সা ও চকচকে হয়ে উঠবে।

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ

উপরে আলোচিত কোন উপাদান আপনার ত্বকের জন্য এলার্জিক হলে তা ব্যবহারে সম্পূর্ণ বিরত থাকুন।

শসার ফেসপ্যাক মুখে লাগিয়ে রোদে এবং ধুলাবালি যুক্ত স্থানে যাবেন না।

আপনার ত্বকে স্ক্রাব /ম্যাসাজ করার সময় অতিরিক্ত প্রেসার দিবেন না।

দাগমুক্ত উজ্জ্বল ফর্সা চকচকে ত্বক পেতে  সপ্তাহে অন্তত দু’বার শসার ফেসপ্যাক ব্যবহার করুন।

শসা আপনার ত্বকের জন্য সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপাদান হওয়াতে এটি ব্যবহারে কোন পার্শপ্রতিক্রিয়ার আশঙ্কা থাকে না। যে কেউ ঘরে বসে শসার ফেসপ্যাক ব্যবহার করতে পারেন। তাই দাগ মুক্ত,  উজ্জ্বল, ফর্সা এবং চকচকে ত্বক পেতে আমাদের নির্দেশিত পন্থা অনুসরণ করে উপরে উল্লেখিত পদ্ধতিতে শসা নিয়মিত আপনার ত্বকে ব্যবহার করুন। হয়ে উঠুন আকর্ষণীয়, সুন্দর ত্বকের অধিকারী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here