গ্রীষ্মকালে ত্বকের পোড়া দাগ দূর করতে আকর্ষণীয় ৪টি সেরা ফেইসপ্যাক

0
3968
গ্রীষ্মকালের ৪টি সেরা ফেইসপ্যাক

গ্রীষ্ম কালে রোদে পোড়া দাগ কিভাবে ভালো করা যায় এটাই তো সকলের টেনশনের একটি বিষয়। কিন্তু বন্ধুরা আজকে আপনাদের সাথে যে বিষয়ে আলোচনা করব সেটি হল আমাদের ত্বক রোদে পুড়ে যায় কেন এবং পুড়ে গেলে আমাদের করণীয় কি???

গ্রীষ্ম কালে আমাদের ত্বক পুড়ে যায় কেন?

বন্ধুরা এর অনেকগুলো কারণ হতে পারে। যেমন,

  •  গ্রীষ্ম কালে আমরা রোদের সংস্পর্শে আসলে আমাদের ত্বকের উপর রোদের আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মি পড়লে তখন আমাদের ত্বক পুড়ে যায় বা কালচে হয়ে যায়।
ত্বক ফর্সা করার উপায়

কেন এমনটি হয় তার বিজ্ঞানসম্মত একটি ব্যাখ্যা আজ আমি আপনাদের দিব।

  • আমাদের ত্বক ফর্সা বা কালো হওয়ার পিছনে মেলানিন নামক একটি উপাদান এর প্রভাব অনেক বেশি রয়েছে। এই মেলানিনের কারণে আমাদের ত্বক কালো বা ফর্সা হয়।
  • মেলানিন আমাদের ত্বকে কি পরিমাণে থাকবে তা বিভিন্ন উপাদানের উপর নির্ভর করে। এই ধরুন জাতিগত বৈশিষ্ট্যের উপর, অথবা বাবা-মায়ের, অথবা এছাড়াও জিনগত অনেকগুলো কারণ রয়েছে। এছাড়া আবহাওয়াগত বা সূর্যের উপস্থিতির উপর মেলানিন উৎপাদন নির্ভর করে।
  • যাদের শরীরে মেলানিন এর মাত্রা বেশি থাকে তাদের শরীর অনেক বেশী কালো দেখায়, আর যাদের শরীরে মেলানিন এর মাত্রা কম থাকে তাদের শরীর অনেক বেশি ফর্সা সুন্দর দেখায়।
মুখের পোড়া দাগ দূর করার উপায়

এখন কথা হচ্ছে রোদের সাথে মেলানিন এর কি সম্পর্ক? সত্যি বন্ধুরা আমরা যখন রোদ এর সংস্পর্শে বের হই তখন আমাদের শরীরের যে পরিমাণ মেলানিন থাকুক না কেন রোদের সংস্পর্শে বা আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মির সংস্পর্শে আসার সাথে সাথে আমাদের ত্বকের মধ্যে যে মেলানিন থাকে তার মাত্রা অনেক গুন বেড়ে যায়। যার কারণে ফর্সা মানুষ কাল হয়ে যায় আর কালো মানুষ আরো বেশী কালো হয়ে যায়।

মুখের কালো দাগ দূর করার উপায়

বন্ধুরা এখন জানা গেল কেন আমাদের ত্বকে রোদে পুড়ে কালো হয়ে যায়।

এখন আমরা গ্রীষ্ম কালে এই রোদে পোড়া কাল দাগ কিভাবে দূর করব তার কিছু সহজ ঘরোয়া সমাধান দিবঃ

আপনারা যদি এই উপকরণ নিয়মিত ব্যবহার করেন তাহলে আপনাদের রোদে পোড়া দাগ সম্পূর্ণভাবে চলে যাবে।

নোটঃ বিভিন্ন ধরনের ঘরোয়া পদ্ধতিতে দাগ দূর করার আগে যে কাজগুলো সতর্কতার সাথে করতে হবে…

 ১। নিয়মিত ছাতা ব্যবহার করতে হবে

সানস্ক্রিন

 ২।  সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে হবে 

রোদে বের হওয়ার ২০ থেকে ২৫ মিনিট আগে হাতে মুখে এবং ঘাড়ে সানস্ক্রিন লাগিয়ে দিতে হবে এবং বাইরে যতক্ষণ থাকবো অন্তর অন্তর এই সানস্ক্রিন লাগিয়ে নিতে হবে। সানস্ক্রিম থাকলে সেটি আমাদের ত্বক সূর্যের, আলো, বায়ুর সংস্পর্শে আসতে পারে না। এবং আমাদের ত্বক সুরক্ষিত থাকে।

এখন এই দুইটি শর্ত আমরা মেনে চলার পাশাপাশি ঘরোয়া পদ্ধতিতে যেসকল প্যাক ব্যবহারের মধ্য দিয়ে ত্বকের মধ্যে হয়ে যাওয়া রোদে পোড়া দাগ কিভাবে দূর করা যায় তা আলোচনা করবঃ

১। গ্রীষ্ম কালে ত্বকের যত্নে আলু ও কাঁচা হলুদ ফেইস প্যাকঃ

এই প্যাকটি তৈরি করতে যে সকল উপকরণ গুলো লাগবে…

  • ২ চা চামচ কাঁচা হ্লুদের গুরা।
  • ১ টি মাঝারি সাইজের আলুর পেস্ট।
মুখের যত্নে ঘরোয়া টিপস

যেভাবে প্যাকটি তৈরি করবেন

একটি পরিষ্কার বাড়িতে আলো ব্লেন্ড করে নিতে হবে তাতে সামান্য পরিমাণে পেস্ট করা কাঁচা হলুদ দিতে হবে, এক্ষেত্রে একটি বিষয় মনে রাখবেন খাবারে যে হলুদ আমরা ব্যবহার করি তা ব্যবহার করা যাবে না। কাঁচা আস্ত হলুদ জোগাড় করার ব্যবস্থা করতে হবে। একটু পানি মিক্স করা যাবে।

হলুদ
হলুদ

এখন এই দুটি উপাদানের মিশ্রন ভালোমতো তৈরি করে আমাদের ত্বকে লাগাতে হবে। হাতে-পায়ে, মুখে অর্থাৎ যে সকল অংশগুলো সবচেয়ে বেশি কালো থাকে সেই সকল অংশে এই প্যাকটি লাগাতে হবে।

এই প্যাকটি লাগিয়ে ২০ মিনিট রেখে ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। বাইরে যখন বের হব তার থেকে যখন বাসায় ফিরব, বাসায় ফিরে এই প্যাকটি আমাদের প্রতিদিনই লাগানো উচিত।

২। গ্রীষ্ম কালে ত্বকের পোড়া দাগ দুর করতে এলোভেরা, মধু ও চালের গুড়ার ফেইস প্যাকঃ

এ প্যাকটি তৈরি করতে যে সকল উপকরণ লাগবে…।

  • ১ চা চামচ অ্যালোভেরা জেল।
  •  আধা কাপ চালের গুড়া। 
  •  ১ চা মধু
গ্রীষ্ম কালে ত্বকের পোড়া দাগ দুর করতে এলোভেরা, মধু ও চালের গুড়ার ফেইস প্যাক

প্যাক বানানোর নিয়মঃ

এই তিনটি উপকরণ হাতের কাছে রেখে যেভাবে প্যাকটি তৈরি ও ব্যবহার করা যায়, প্রথমে তিনটি উপকরণ ভালোমতো একটি বাটিতে নিয়ে মিশ্রন তৈরী করে, আমাদের শরীরে বা মুখে লাগাতে হবে।

গোসলের আগে এই প্যাকটি লাগিয়ে নেয়ার পর গোসলের সাথে পরিষ্কার করে ফেললে এবং প্রতিদিন এই প্যাকটি ব্যবহার করলে রোদে পোড়া দাগ আমাদের শরীরে হবে না। আর যদি হয়েও থাকে এই প্যাকটি ব্যবহারের মাধ্যমে সম্পূর্ণভাবে দাগ গুলো চলে যাবে।

তৈলাক্ত ত্বক ফর্সা করার উপায়

৩। গ্রীষ্ম কালে ত্বকের টক দই, কেস্টর অয়েল ও ট্মেটোর ফেইস প্যাকঃ

এই প্যাকটি করতে হবে তার জন্য যে সকল উপকরণ আমাদের হাতের কাছে রাখতে হবে……

  • ১ টেবিল চামচ কাস্টার অয়েল।
  •  ১ চা চামচ টক দই।
  •  ১ টি পাকা ট্মেটো।

যেভাবে এই প্যাকটি তৈরি ব্যবহার করবেন

তিনটি উপকরণ ভালোমতো মিশ্রিত করে গোসলের আগে প্রতিদিন ব্যবহার করতে হবে। বন্ধুরা এতে করে রোদে পোড়া দাগ আমাদের চলে যাবে।

৪। গ্রীষ্ম কালে ত্বকের জন্য আলু ও মধুর সাথে শশা ও ডালের ফেইস প্যাকঃ

এ প্যাকটি তৈরি করতে আমাদের যে সকল উপকরণ লাগবে…।

  • ২ টেবিল চামচ আলুর পেস্ট।
  • ১ টেবিল চামচ শশার রস।
  • ২ তেবিল চামচ ডালের পেস্ট।
কাঁচা হলুদের টিপস

যেভাবে তৈরি ব্যবহার করবেন

প্রত্যেকটি  মিশ্রণ ভালো ভাবে মিশিয়ে এই প্যাকটি তৈরি করবেন। এরপর আমাদের ত্বকের উপর ব্যবহার করবেন। অন্ততপক্ষে ২০ মিনিটের মত রেখে তার পরে ধুয়ে ফেলতে হবে।

কাঁচা হলুদের রুপচর্চা
রুপচর্চা

প্রতিদিন এই প্যাকটি ব্যবহারের মধ্য দিয়ে আমাদের গ্রীষ্ম কালের  রোদে পোড়া দাগ চিরদিনের জন্য চলে যাবে।

আপনাদের জন্য যে চমৎকার চমৎকার প্যাক ও পরামর্শ আজকে নিয়ে এসেছি এগুলো যদি নিয়মিত ব্যবহার বা অনুসরণ করেন তাহলে গ্রীষ্ম কালের রোদে পোড়া দাগ নিয়ে আর চিন্তা করা লাগবে না। চিরদিনের জন্য রোদে পোড়া দাগ থেকে আপনার শরীরকে আপনি রক্ষা করতে পারবেন। ধন্যবাদ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here