কাঁচা ছোলা খাওয়ার উপকারিতা

0
81
কাঁচা ছোলা খাওয়ার উপকারিতা

ছোলা পচন্দ করেন না, এমন মানুষ পাওয়া কিন্তু কঠিন। আমরা শুধু রমজান মাসের ইফতারিতেই ছোলা খায়, তা কিন্তু নয়। বর্তমানে প্রায় সবখানেই কিন্তু আমরা ছোলা খেতে পছন্দ করি। 

কাঁচা ছোলা খেলে কি উপকার হয় সে বিষয় নিয়ে আজকে আপনাদের সাথে আলোচনা করব। বিভিন্ন ধরনের বৈজ্ঞানিক গবেষণার মাধ্যমে কাঁচা ছোলা আমাদের শরীরের জন্য কতটুকু উপকারী আজকে আমার প্রতিবেদনে সেটাই দেখানো হবে। 

আশা করি যারা এতোদিন উপকারিতা না জেনে ছোলা খেয়েছেন, আজকের এ প্রতিবেদনটি পড়ে আপনারা বাজার থেকে ছোলা কিনে এনে সংরক্ষণে রাখবেন।

কেন কাঁচা ছোলা খাবেন

কাঁচা ছোলাতে প্রচুর পরিমানে কার্বোহাইডেট এবং ফাইবার রয়েছে। যেটা আমাদের শরীরের জন্য অনেক উপকারী। কাঁচা ছোলা বিশেষ করে আমাদের শরীরে কার্বোহাইড্রেট বাড়াতে এবং শক্তি বাড়াতে কাজ করে। 

শরীরে এন্টিবায়োটিক ক্ষমতা বাড়াতে কাঁচা ছোলা খাওয়ার উপকারিতাঃ

উচ্চমাত্রার প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার হচ্ছে কাঁচা ছোলা। কাঁচা ছোলা ভিজিয়ে, খোসা ছাড়িয়ে এবং আদার সাথে মিক্স করে খেলে আমাদের শরীরে এন্টিবায়োটিক ক্ষমতা বেড়ে যাবে। যেকোনো রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা বাড়ানোর কারণে আমরা অনেক রোগ থেকে দূরে থাকতে পারবো। 

প্রচুর শক্তিসম্পন্ন ডাল হিসেবে কাঁচা ছোলার উপকারিতাঃ  

ছোলা খুবই পুষ্টিকর একটি ডাল। ছোলাতে দ্রবণীয় ও অদ্রবণীয় ফাইবার থাকার কারণে এটি আমাদের শরীরে অনেক বেশি শক্তি যোগায়। পাশাপাশি কাঁচা ছোলার মধ্যে আমিষ, কার্বোহাইড্রেটের পরিমাণ অনেক বেশি থাকে। যা শরীরের শক্তি যোগাতে খুব বেশি কার্যকরী। 

স্ট্রোকের ঝুঁকি কমাতে কাঁচা ছোলার উপকারিতাঃ  

অস্ট্রেলিয়ান গবেষণাগারে প্রমাণিত যেহেতু কাঁচা ছোলায় প্রচুর পরিমাণে ফাইবার রয়েছে এবং ম্যাগনেসিয়াম, ক্যালসিয়াম, ভিটামিন b6 এর উপাদান গুলো উপস্থিত আছে। তাই এটি আমাদের শরীরের খারাপ কোলেস্টেরল কমিয়ে ফেলতে কাজ করে। যার ফলে আমাদের রক্ত চলাচল স্বাভাবিক রেখে স্ট্রোকের ঝুঁকি থেকে মুক্ত রাখে। 

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে কাঁচা ছোলার উপকারিতাঃ  

যে সকল পুরুষ বা মহিলাদের উচ্চ রক্তচাপ বা হাইপারটেনশন থাকে, তারা কিন্তু কাঁচা ছোলা কে নিয়মিত একটা খাবার হিসাবে সংরক্ষণে রাখতে পারেন। যেহেতু কাঁচা ছোলাতে প্রচুর পরিমাণে ফলিক এসিড থাকে, তাই এটি আমাদের রক্ত পরিষ্কার করতে এবং রক্তচাপ কমাতে কাজ করে। আমেরিকার মেডিকেল এসোসিয়েশনের জার্নালের একটি প্রতিবেদনে দেখা যায়, কাঁচা ছোলা প্রেশারের ঝুঁকি থেকে আমাদেরকে দূরে রাখে। 

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে কাঁচা ছোলার উপকারিতাঃ  

যাদের কোষ্ঠকাঠিন্য আছে বা মলত্যাগে যাদের কষ্ট হয় তারা কাঁচা ছোলা নিত্য সঙ্গী হিসেবে রাখতে পারেন। কাঁচা ছোলাতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার থাকার কারণে এটি আমাদের খাবার হজমে খুব বেশি ভূমিকা রাখে। তাই কোষ্ঠকাঠিন্য রোগ থেকে দুরে থাকতে কাঁচা ছোলার কোন বিকল্প নেই। 

শরীরে দীর্ঘক্ষন শক্তি সঞ্চয় করাতে কাঁচা ছোলার উপকারিতাঃ

যেহেতু কাঁচা ছোলা একটি শক্ত খাবার। তাই এটি খাওয়ার সাথে সাথে আমাদের শরীরে তা হজম হয়ে যায় না। এবং খুবই দ্রুত রক্তের সাথে মিশে যায় না। ধীরে ধীরে এ খাবার শরীর হজম করে বলে এর থেকে উৎপন্ন শক্তি অনেকক্ষণ পর্যন্ত আমাদের শরীরে থাকে। যা দিয়ে আমরা দীর্ঘক্ষন কাজ করা এনার্জি পাই। 

নোটঃ প্রতিটি জিনিসের ভালো-খারাপ দুটি দিক থাকে। নিয়ম মত করে খেলে কাঁচা ছোলা আমাদের শরীরের জন্য অনেক উপকারী। কিন্তু যাদের খাবার হজম খুব কম হয়, যাদের একটু থেকে একটু হলেই ডায়রিয়া হয়ে যায়, তারা কাঁচা ছোলা খাওয়া থেকে বিরত থাকবেন।

সুতরাং উপরের আলোচনা থেকে বোঝা গেল কাঁচা ছোলা আমাদের জন্য কতটা উপকারী। চেষ্টা করবেন প্রতিদিন কাঁচা ছোলা আপনাদের খাবারের তালিকায় রাখতে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here