ওলট কম্বল গাছের উপকারিতা

0
1274

জীবনে অনেক ধরনের গাছের নাম শুনেছেন, কিন্তু উলটকম্বল গাছের নাম কখনো কি শুনেছেন????এমন অদ্ভুত গাছের নাম কি আজই প্রথম শুনলেন????

অনেকেই হয়তো প্রথম শুনেছেন। কিন্তু এই গাছটি আমাদের গ্রামে অনেক বেশি দেখা যায়। 

আজকে আপনাদের সাথে ওলটকম্বল গাছের উপকারিতা নিয়ে একটু আলোচনা করবো। আশা করি আজকের প্রতিবেদনটির মাধ্যমে আপনারা অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবেন। 

ওলট কম্বল গাছের উপকারিতাঃ

ওলটকম্বল গাছ একটি ঔষধি গাছ। এটির জন্ম অনেকের মতে ভারতবর্ষে হলেও বর্তমানে এটি প্রায় সব দেশে দেখা যায়। আমাদের দেশে বিশেষ করে গ্রামের এটির উৎপাদন বেশি। 

ওলটকম্বল গাছ এটি এমন একটি গাছ, যার পাতা, শাখা, ডাল,শেকড়-বাকড় প্রভৃতি মানুষের উপকারে লাগে। 

অশ্ব রোগ সমাধানে ওলট কম্বল গাছের উপকারিতাঃ

যাদের অশ্ব রোগ আছে বা যাদের মলত্যাগে সমস্যা হয়, খাবার ঠিকভাবে হজম না হওয়ার কারণে মলদ্বারে ঘা হয়ে যায়, তাদের জন্য ওলটকম্বল গাছের উপকারিতা অনেক বেশি। 

আপনারা যদি প্রতিদিন সকালে ওলট কম্বল গাছের শেখড়  একগ্লাস পানিতে সারা রাত ভিজিয়ে রেখে সকালবেলা পান করেন। সেটি আপনার মলত্যাগে অনেক বেশি সহায়তা করবে এবং ধীরে ধীরে আপনার অশ্বরোগ সমাধানের দিকে যাবে। 

জরায়ু সমস্যার সমাধান ওলট কম্বল গাছের উপকারিতাঃ 

জরায়ু সমস্যার কারণে যাঁরা মা হতে পারছেন না, বা যাদের মা হওয়ার সম্ভাবনা দিন দিন কমে যাচ্ছে, আপনারা কিন্তু জরায়ু সমস্যা সমাধানের জন্য ওলট কম্বল গাছের বাকল ও শিকড়কে ঔষধ হিসেবে ধরে নিতে পারেন।

এই ক্ষেত্রে আপনাদেরকে উলট কম্বল গাছের বাকল পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে। ওলট কম্বল গাছের বাকল পানিতে ভিজিয়ে রাখলে একটা আঠালো রস বের হয়ে আসে। সেটা যদি আপনি নিয়মিত খেতে পারেন তাহলে আপনার বন্ধ্যাত্ব বা জরায়ু সমস্যা অথবা মা না হওয়ার সমস্যা থেকে আপনি সমাধান পেতে পারেন।

শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে ওলট কম্বল গাছের উপকারিতাঃ

যাদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাচ্ছে তারা ওলট কম্বল গাছের পাতার রস খেতে পারেন। একটি বড় পাতিলে পানি গরম করতে দেওয়ার পর সেখানে কিছু ওলট কম্বল গাছের পাতা দিয়ে দিবেন। ১০-১৫ মিনিট পানি সিদ্ধ করবেন। সিদ্ধ হওয়ার পরে সেই পানি যদি আপনি সকালে খালি পেটে বা রাত্রে ঘুমাতে যাওয়ার আগে নিয়মিত খেতে পারেন, তাহলে আপনার শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেক বেড়ে যাবে।  

চুলের যত্নে ওলট কম্বল গাছের উপকারিতাঃ

যাদের চুল পড়ে যাচ্ছে বা যারা চুল ঘন কালো উজ্জ্বল করতে চাচ্ছেন, তারা ওলট কম্বল গাছের পাতার রস ব্যবহার করুন। চুল ঘন কালো উজ্জ্বল দেখাতে, ২টেবিল চামচ ক্যাস্টর অয়েল এর সাথে ২ চা-চামচ ওলট কম্বল গাছের পাতার রস মিশ্রিত করে যদি মিশ্রিত তেল টি হালকা গরম করে আপনি সপ্তাহে তিনবার ব্যবহার করেন, তাহলে ২০-৩০ দিনের মধ্যে আপনার চুল ঘন কালো এবং উজ্জ্বল হয়ে যাবে।

সুতরাং বন্ধুরা, আজকে এই লেখাটির মাধ্যমে ওলটকম্বল গাছ কি? এবং ওলট কম্বল গাছের উপকারিতা সম্পর্কে আপনারা জানলেন। 

আশা করবো আজকের প্রতিবেদনটির মাধ্যমে নিজেদের উপকার অনুযায়ী ওলটকম্বল গাছ এর বিভিন্ন উপকারিতা আপনারা ব্যবহার করবেন।   

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here