দাগ মুক্ত ফর্সা ত্বক পেতে ১ বার এই আলুর ফেসিয়াল করে দেখুন অবাক হয়ে যাবেন

0
7502
দাগহীন ত্বকের জন্য আলুর ফেসপ্যাক

বন্ধুরা, আজকে আমি আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি এমন একটি  দুর্দান্ত আর চমৎকার ঘরোয়া রেমিডি যেটিকে শুধুমাত্র একবার ব্যবহার করলেই আপনি দেখতে পাবেন আপনার মুখ এত ধবধবে উজ্জ্বল ফর্সা আর গ্লোয়িং হয়ে গেছে যা দেখে আপনি নিজেই বিশ্বাস করতে পারবেন না।

বন্ধুরা , এই দুর্দান্ত স্কিন হোয়াইটেনিং মাস্কটি আপনার ত্বককে শুধু  ফর্সা করবেনা বরং এটি  ত্বক ফর্সা করার সাথে সাথে ত্বকের দাগছোপ এবং রোদেপোড়া দাগকে দূর করে দিবে, আর ত্বককে করে তুলবে দুর্দান্তভাবে উজ্জ্বল ফর্সা এবং কাঁচের মতো পরিষ্কার ।    

মাস্কটি বানানোর জন্য প্রথমে একটি পরিষ্কার বাটিতে

  • ২ চামচ চালের গুড়া নিতে হবে ।

চালের মধ্যে ভরপুর মাত্রায় অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট থাকে যা আমাদের ত্বকের এইজিং প্রসেস স্লো করে দেয়। যার ফলে ত্বক থেকে প্রায় 10 বছর পর্যন্ত বয়সের ছাপ কমে যায় আর ত্বক উজ্জ্বল টানটান ও মসৃণ হয়।

এছাড়াও এর মধ্যে এসিড থাকে যা ত্বককে রোদে  ট্যান পড়ে যাওয়া থেকে রক্ষা করে আর ত্বকের দাগছোপকেও দূর করে।  

চালের গুড়ার  সাথে add করব  

  • ১ চামচ আলুর পেষ্ট
  • ১ চামচ টক দই
  • ১ চামচ গোলাপজল
  • ও ২ টি ভিটামিন ই । ভিটামিন ই  ত্বকের কোষকে সুস্থ রাখতে সহায়তা করে ।

এবার এদেরকে খুব ভালভাবে মিশিয়ে smoth পেষ্ট তৈরী করে নিব ।  

উপাদানগুলো মিশে নরম পেষ্ট তৈরি হয়ে গেছে।বন্ধুরা এখন skin Fairness মাস্কটি পুরোপুরিভাবে তৈরী ।এবার আমি আপনাদেরকে জানিয়ে দিব এটিকে কিভাবে ব্যবহার করতে হবে।মাস্কটি ব্যবহার করার আগে জল দিয়ে ত্বক পরিস্কার করে নিন।

এরপর skin Fairness মাস্কটি ব্রাশের সাহায্যে চেহারায় এইভাবে apply করুণ ।

এই মাস্কটিতে আমি আলুর পেষ্ট ব্যবহার করেছি।  

আলুর মধ্যে ত্বকের দাগছোপ দূর করার গুণাগুণ পাওয়া যায়। তাছাড়া আলু আমাদের ত্বকের রংকেও উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে । এছাড়াও আলুর মধ্যে ভরপুর মাত্রায় ভিটামিন সি ও জিংক পাওয়া যায় যা ত্বক হতে ডেড স্কিন সেল, ডার্ক সার্কেল ও রিংকেলস্‌কে দূর করে দিয়ে ত্বকে প্রাকৃতিকভাবে ফেয়ারনেস ও গ্লো নিয়ে আসবে।

আর গোলাপজলের মধ্যে রয়েছে অ্যান্টি-ব্যাক্টেরিয়াল প্রোপার্টি যা ত্বক হতে acne,pimple,darmatities এর মত বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করে থাকে। গোলাপজল ত্বকে টোনার হিসেবেও অসাধারণ কাজ করে ।

এটি মুখে লাগিয়ে শুকিয়ে যাওয়ার জন্য ২০ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করুণ।

২০ মিনিট পর মাস্কটি ত্বকে শুকিয়ে গেলে পরিস্কার জল দিয়ে ধুয়ে নিন।  

যদি আপনি আপনার ত্বককে দাগছোপহীন ফর্সা ও উজ্জ্বল রাখতে চান তাহলে এই মাস্কটি সপ্তাহে ২বার ব্যবহার করতে পারেন…… এতে আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা সবসময় বজায় থাকবে।  

বন্ধুরা , এই ফেইসপ্যাকটি মাত্র ১ বার ব্যবহার করে আমার ত্বক কতটা উজ্জ্বল ,ফর্সা ও দীপ্তময় হয়েছে লক্ষ্য করুণ ।এই মাস্কটি নিয়মিত ব্যবহার করলে দাগমুক্ত কাঁচের মতো  চকককে ফর্সা ত্বক পাবেন।  আপনারা এটি অবশ্যই বাড়িতে apply করে দেখবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here