উজ্জল ও ফর্সা ত্বকের জন্য কফির ফেসপ্যাক

0
42
রূপচর্চায় কফির ব্যবহার
রূপচর্চায় কফির ব্যবহার

আপনি যদি হয়ে থাকেন একজন কফি প্রিয় মানুষ তাহলে আপনি অবশ্যই জানেন কিভাবে কফি একটি খারাপ সময়কে ভালো সময়ে পরিণত করতে পারে। অজানা বিষয়টি হতে পারে এই যে এই প্রাকৃতিক উপাদান টি মধ্যে লুকিয়ে রয়েছে অজানা এক শক্তি যা আপনার ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে কাজ করে। কফি হচ্ছে সকল অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং ক্যাফেইড এসিডের শক্তির উৎস। কফি আপনার ত্বকের স্তর থেকে স্তর উঠিয়ে আনতে সাহায্য করে, উজ্জ্বলতা বাড়ায় ও ত্বকের নমনীয়তা বৃদ্ধি করে এবং বার্ধক্যের লক্ষণ কমিয়ে আনতে সহায়তা করে। যারা কফি পছন্দ করেন তাদের জন্য এই উপাদানটি খুবই কার্যকরী। যারা কফি পছন্দ করেন না, তারা এই প্রাকৃতিক উপাদান এর গুনাগুন সমূহ একবার ভোগ করে দেখতে পারেন।

 তাহলে চলুন দেখে নেওয়া যাক কিভাবে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে কফি দিয়ে বানানো ফেইস মাস্ক গুলি কাজ করে।

) কফি ও মধু

একদিকে কফি আপনার ত্বকের ভেতর লুকিয়ে থাকা মৃত কোষগুলি কে শরীরের ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে এবং ত্বক ফর্সা করে। অপরদিকে মধু একটি প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার, যা আপনার ত্বককে ময়েশ্চারাইজ করে, আপনার ত্বককে রাখে জলযোজিত ও নরম এবং ত্বক‌কে করে তোলে মসৃণ।

উপাদানঃ ২চা চামচ কফি ও এক চামচ মধু।

কফি-ও-মধুর-ফেসপ্যাক
কফি-ও-মধুর-ফেসপ্যাক

পদ্ধতিঃ

  •  কফি ও মধু একসাথে মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করুন।
  • ত্বকে লাগিয়ে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন।
  • কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।
  • ভালো ফলাফল পেতে সপ্তাহে অন্তত দু’বার এই মাস্কটি ব্যবহার করুন।

) কফি, হলুদ ও টক দই

এই মাস্কটি তৈলাক্ত এবং একনি-প্রণ ত্বকের জন্যে খুবই উপকারী। হলুদ একটি অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল উপাদান, যা ত্বকে বিদ্যমান থাকা একনির সাথে লড়াই করে এবং একনির দাগ সংকুচিত করতে সাহায্য করে। টক দই ত্বকে থাকা‌ অতিরিক্ত তেল শোষণ করে নেয় এবং ত্বককে রাখে হাইড্রেটেড। কফি ত্বকের লোমকূপের ছিদ্রগুলোকে অবরুদ্ধ করে এবং প্রদাহ কমিয়ে আনে। কফিতে রয়েছে অধিক পরিমাণে এক্সফলিয়েট করার ক্ষমতা, যা আপনার ত্বককে মসৃণ ও কোমল রাখতে সাহায্য করে। তবে মনে রাখবেন, কফি ফেইসমাস্ক ব্যবহার করার সাথে সাথেই ত্বককে ময়েশ্চারাইজ করা জরুরি।

উপকরণঃ ২চা চামচ কফি পাউডার, ২ চা চামচ টক দই ও ১/২চা চামচ হলুদ।

কফি,-হলুদ-ও-টক-দই-ফেসপ্যাক
কফি,-হলুদ-ও-টক-দই-ফেসপ্যাক

উপায়ঃ

  • সব উপকরণ একসাথে মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করুন।
  • ত্বক পরিষ্কার করে নিন।
  • এরপর পেস্টটি ত্বকে লাগান এবং ১০ মিনিট অপেক্ষা করুন।
  • মুখ ধুয়ে ফেলুন এবং ময়েশ্চারাইজার লাগান।
  • ভালো ফলাফল পেতে হলে সপ্তাহে অন্তত ২-৩ এই ফেসপ্যাকটি ব্যবহার করুন।

) কফি ও দুধ

উজ্জ্বল ফর্সা ত্বকের জন্য খুব ইচ্ছে থাকা সত্বেও যেন তা অসাধ্যকর, তাই না??

তাহলে এই ফেসমাস্কটি আপনার ইচ্ছে পূরণের জন্যে চমৎকার একটি উপায়। এটি সবচাইতে সহজ একটি কফি ফেইসমাস্ক, যার রয়েছে অনেক উপকারিতা। এটি শুধু আপনার ত্বকের ভেতর জমে থাকা ময়লা দূর করে না, বরং ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়িয়ে দেয়, ত্বককে করে তোলে ফর্সা।

ফেসপ্যাক

প্রক্রিয়াঃ

  • এক চামচ কফি পাউডার নিন ও আধা চামচ কাঁচা দুধ নিন।
  • উপকরণ দুটি ভালোভাবে মিশিয়ে নিন।
  • এবার ত্বকে লাগান এবং ১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। ‌
  • এরপর পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন, মুখ ধোয়ার সময় আলতোভাবে মাসাজ করুন। তারপর মশ্চারাইজার লাগান।
  • ভালো ফলাফলের জন্য সপ্তাহে দুই বার ব্যবহার করুন।

) কফি ও লেবু

এই কফি মাস্কটি তৈলাক্ত ত্বকের জন্য দারুন উপকারী। অধিক মাত্রায় ভিটামিন সি-তে সমৃদ্ধ উৎস হলো লেবু এবং তাই এটি ত্বকের ভেতর জমে থাকা অতিরিক্ত ক্ষরিত রস শোষণ করে নেয়। অন্যদিকে কফি ত্বকের ভেতর প্রবেশ করে ত্বক পরিষ্কার করে এবং উজ্জলতা এনে দেয়।

যা লাগবেঃ এক চামচ কফি পাউডার ও এক চামচ লেবুর রস।

কফি ও লেবু ফেসপ্যাক

পদ্ধতিঃ

  • কফি পাউডার ও লেবুর রস মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করুন।
  •  ত্বকে লাগান এবং ১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন।‌
  • এরপর হালকা গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন এবং মশ্চারাইজার লাগান।
  • সপ্তাহে একবার এই ফেস মাস্ক ব্যবহার করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here