স্থায়ীভাবে ত্বক ফর্সা ও উজ্জ্বল করতে আলুর ফেসপ্যাক 100% কার্যকরী

0
1870
potato face pack

আমরা সময়ের অভাবে নিজের ত্বকের যত্ন নিতে পারিনা। নিজেদের ত্বকের যত্ন নেবার জন্য আমরা সব সময় ভাবি ত্বকের যত্ন নেবার জন্য আমাদের হয়তো অনেক কিছুর প্রয়োজন আছে আর এই কথা ভাবার কারণে আমরা সঠিকভাবে নিজেদের ত্বকের যত্ন নিতে পারিনা বা নিজেদের ত্বকের যত্ন নেওয়া হয়ে উঠে না।

প্রকৃতি আমাদেরকে অনেক কিছু দান করেছেন । আমরা চাইলে এইসব প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে আমাদের ত্বকের যত্ন নিতে পারি। প্রকৃতির মধ্যে এমন সব উপাদান আছে যার মধ্য হতে শুধুমাত্র একটি উপাদান দিয়ে আমরা ত্বকের যত্ন নিতে পারি । 

আপনারা নিশ্চয়ই ভাবছেন একটি মাত্র উপাদান দিয়ে কিভাবে আবার ত্বকের যত্ন নেয়া যায়?

হ্যাঁ এটা সঠিক , শুধুমাত্র একটি উপাদান দিয়ে ত্বকের যত্ন নেওয়া সম্ভব।

আজকে আমি আপনাদের সাথে এমন একটি রেমিড়ি শেয়ার করতে যাচ্ছি যেখানে শুধুমাত্র একটি উপাদানের সাহায্যে আপনারা কিভাবে ত্বকের যত্ন নিবেন সেটি আমি আপনাদেরকে জানিয়ে দিব।

আলুর ফেসপ্যক

একটি মাত্র উপাদান দিয়ে ত্বকের পরিচর্যা করেও ত্বককে স্থায়ীভাবে ফর্সা ও উজ্জ্বল করতে পারবেন। 

স্থায়ীভাবে ত্বক ফর্সা ও উজ্জ্বল করতে আলুর ফেসপ্যাক বানানোর নিয়মঃ


আমি ফেসপ্যাকটির এপ্লাই প্রক্রিয়াকে তিন ভাগে ভাগ করেছি 

  • স্টেপ ১ঃ ম্যাসাজিং
  • স্টেপ ২ঃ ফেসপ্যাক তৈরি ও এপ্লাই 
  • স্টেপ ৩ঃ ময়েশ্চারাজিং

স্টেপ ১ঃ ম্যাসাজিং

প্রয়োজনীয় উপাদানঃ

  • ১ টি আলু

এপ্লাই পদ্ধতিঃ

আলুর ফেসপ্যাক
  • ত্বককে ম্যাসাজ করার জন্য প্রথমে আলু নিয়ে পরিষ্কার করে ধুয়ে নিতে হবে । 
  • এরপর আলু পাতলা ভাবে কয়েকটি স্লাইস করে কেটে নিতে হবে  
ত্বক ফর্সা ও উজ্জ্বল করতে আলুর ফেসপ্যাক
  • এরপর স্লাইস করা আলুর টুকরো নিয়ে মুখের মধ্যে ৫ মিনিট মতো মাসাজ করতে থাকুন ।
  • এইভাবে ম্যাসাজ করলে মুখের ব্লাড সার্কুলেশন বৃদ্ধি পেয়ে মুখের ত্বক সুস্থ ও টানটান হয় 

ম্যাসাজ করার পর আমরা চলে যাব স্টেপ ২ এ । 

স্টেপ ২ঃ ফেসপ্যাক তৈরি ও এপ্লাই 

প্রয়োজনীয় উপাদানঃ

  • ১ টি বড় সাইজের আলু
ত্বক ফর্সা ও উজ্জ্বল করতে আলুর ফেসপ্যাক

তৈরি ও এপ্লাই পদ্ধতিঃ

  • ফেসপ্যাক তৈরি করার জন্য একটি বড় সাইজের আলু নিয়ে এর খোসা ছাড়িয়ে এটিকে টুকরো করে কেটে নিতে হবে।
  • আলু টুকরো করে কেটে নেবার পর একটি ব্লেন্ডারের মধ্যে নিয়ে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। 
  • এরপর ব্লেন্ড করা আলু পুরো মুখের মধ্যে এপ্লাই করে নিন । 
  • এটি ত্বকের মধ্যে এপ্লাই করার পর ২০ মিনিট অপেক্ষা করুণ ।  
  • ২০ মিনিট পর ত্বক টানটান হয়ে গেলে কুসুম গরম জল দিয়ে ত্বক ভালোভাবে মুছে নিতে হবে। 
ত্বকের দাগ দূর করার উপায়
  • কুসুম গরম জল দিয়ে ত্বক মুছার পর নরমাল পানি দিয়ে ধুয়ে নেবেন । 

স্টেপ ৩ঃ ময়েশ্চারাইজিং 

প্রয়োজনীয় উপাদানঃ

ত্বকের যত্নে এলোভেরা জেল

১টি অ্যালোভেরার পাতা

এপ্লাই পদ্ধতিঃ

  • ত্বককে ময়েশ্চারাইজ করার জন্য একটি অ্যালোভেরা পাতা নিয়ে এর দু পাশ কেটে এর খোসা ছাড়িয়ে নেব। অ্যালোভেরার খোসা ছাড়ানোর পর এর মাংস গুলো একটু কেটে নিব যেন ভেতর থেকে অ্যালোভেরা্র জেল বের হয়ে আসে। 
  • এরপর অ্যালোভেরার টুকরোটির সাহায্যে ত্বকের উপর তিন মিনিট ম্যাসাজ করতে হবে। 
ত্বক ময়শ্চারাইজা করার উপায়
  • অ্যালোভেরা তিন মিনিট ম্যাসাজ করার পর আবার শুধুমাত্র হাত দিয়ে আরো ২ মিনিট ম্যাসাজ করলে ত্বক ময়েশ্চারাইজ করা হয়ে যাবে । 

এই অপশনটি পুরোপুরি অপশনাল ।

স্থায়ীভাবে ত্বক উজ্জ্বল করার উপায়

আপনাদের কাছে অ্যালোভেরার পাতা না থাকলে আপনারা ব্যবহারের যে কোন ময়েশ্চারাইজ ক্রিম ব্যবহার করতে পারবেন। 

আলুর উপকারিতাঃ

ত্বকের দাগছোপকে দূর করার জন্য আলু সবচেয়ে বেশি উপকারি । আলুর মধ্যে থাকে প্রাকৃতিক ব্লিচিং প্রোপার্টি যা আমাদের ত্বক হতে দাগ ছোপকে ধীরে ধীরে হালকা করতে সাহায্য করে।

স্থায়ীভাবে ত্বক উজ্জ্বল করার উপায়

আলু ত্বকে ব্যবহার করলে এটি এন্টি-এইজিং মাস্ক হিসেবে করে ত্বক হতে বয়সের ছাপকে দূর করে ত্বককে ইয়াং রাখে।
তো বন্ধুরা আপনারা তো জেনে নিলেন একটি মাত্র উপাদান দিয়ে কিভাবে ত্বকের যত্ন নিতে হবে । আপনারা অবশ্যই এটিকে বাড়িতে ট্রাই করবেন। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here